মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন রুটে বিমান টিকিটের মূল্যবৃদ্ধি ও আসন সংকট নিরসনে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী বরাবর চিঠি দিয়েছে অ্যাসোসিয়েশন অব ট্রাভেল এজেন্টস অব বাংলাদেশ (আটাব)।
ফ্লাইট সংখ্যা বৃদ্ধির মাধ্যমে ভাড়া কমাতে বলছে সংগঠনটি।

চিঠিতে সংগঠনের সভাপতি মনছুন আহামেদ কালাম বলেন, মধ্যপ্রাচ্যে ভ্রমণকারীদের অধিকাংশ যাত্রী প্রবাসী কর্মী, যারা আমাদের দেশের রেমিট্যান্স যোদ্ধা।
এ শ্রেণির যাত্রীদের কষ্টে অর্জিত অর্থ আমাদের অর্থনীতিকে চাঙ্গা করে রাখছে এবং এর ফলে দেশ প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করছে।
অতি সম্প্রতি লক্ষ্য করা যাচ্ছে, মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন রুটে টিকিটের মূল্য অস্বাভাবিক বৃদ্ধি পেয়েছে।
যার কারণে প্রবাসী যাত্রীরা বিড়ম্বনার শিকার হচ্ছেন।
মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন রুটে নভেম্বর-২০২১ পর্যন্ত টিকিটের মূল্য ছিল ৪০ হাজার থেকে ৪৫ হাজার টাকা।
যার বর্তমান মূল্য ৭০ হাজার থেকে ৯০ হাজার টাকা;
যা অযৌক্তিক, অসম্ভব ও অনভিপ্রেত।
এ অতিরিক্ত ভাড়া বহন করা কর্মস্থলে যাওয়া যাত্রীদের জন্য প্রায় অসম্ভব ও কষ্টসাধ্য।

আটাব বলছে, সম্প্রতি সৌদি আরব সরকারের তরফে বাংলাদেশিদের জন্য চাকরি ভিসার কোটা বৃদ্ধি করা হয়েছে।
এ ছাড়া সংযুক্ত আরব আমিরাতে বাংলাদেশি যাত্রীদের অনুকূলে ভিজিট ভিসা ও কর্মসংস্থান ভিসা অধিক সংখ্যক হারে ইস্যু হচ্ছে বলে আটাব জানতে পেরেছে।
ভিসা সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ায় আসন চাহিদা বৃদ্ধি পেয়েছে।
এই সুযোগে এয়ারলাইন্সগুলো অস্বাভাবিক হারে ভাড়া বৃদ্ধি করছে।